ঢাকা, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

চুয়াডাঙ্গায় ঠাণ্ডাজনিত রোগের প্রকোপ বেড়েছে

চুয়াডাঙ্গায় ঠাণ্ডাজনিত রোগের প্রকোপ বেড়েছে

ছবি: গ্লোবাল টিভি

রকিব হোসেন, চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গা জেলায় এখনো জেঁকে বসেনি শীত। মৌসুম দিনের বেলাতে তেমন শীত অনূভুত না হলেও সন্ধ্যা থেকে ঠান্ডা অনূভুত হচ্ছে। আর এরই মধ্যে বেড়েছে বিভিন্ন ঠাণ্ডাজনিত রোগের প্রকোপ। বিশেষ করে শিশু বৃদ্ধরা নিউমোনিয়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ৬-৭ মাস বয়সের শিশুদের নিউমোনিয়া রোগীর ভর্তি বেড়েছে। প্রতিদিন ৬০-৭০ জন নিউমোনিয়া আক্রান্ত শিশু চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। গত সাত দিনে সদর হাসপাতালে নিউমোনিয়া রোগে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা ছিলো ৪০০। বেড ও জায়গা স্বল্পতায় মেঝে ও বারান্দা থেকেই নিতে হচ্ছে চিকিৎসা সেবা।

রোগীর স্বজনরা বলেন, মেঝেতে অবস্থান করার কারণে নিউমোনিয়া আরো বাড়ছে। চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নিউমোনিয়া আক্রান্ত শিশুর মা আজমিরা খাতুন বলেন, আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে আমার বাচ্চার নিউমোনিয়া হয়েছে। এখানের পরিবেশটা খুবই নাজুক।

আরেক রোগীর স্বজন বাবুল ইসলাম বলেন, তিনদিন হলো, আমি হাসপাতালে আছি, কিন্তু এখানকার পরিবেশ খুবই অস্বাস্থ্যকার।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, শিশু ওয়ার্ডটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ চলছে। যার কারণে শিশু ওয়ার্ডের রোগীদের জায়গা পরিবর্তন করে পাশের চক্ষু ওয়ার্ডে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সেখানে জায়গা স্বল্পতার কারণে রোগীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দুই-একদিনের মধ্যে শিশু ওয়ার্ডটি ব্যাবহার করা হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে সিনিয়র স্টাফ নার্স মোছাঃ লতিফা খাতুন বলেন, আবহাওয়া পরিবর্তন আর ঠাণ্ডার কারণে শিশুদের নিউমোনিয়া বাড়ছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার আসাদুর রহমান মালিক বলেন, আবহাওয়া তারতম্যের কারণে নিউমোনিয়া রোগীর প্রার্দুভাব বাড়ছে। এ সময়ে মায়েদের সচেতন হতে হবে এবং শিশুদের গরম কাপড়ের মধ্যে রাখতে হবে। ১-৬ মাস পর্যন্ত শিশুদের বুকের দুধ খাওয়াতে হবে।

এএইচ