ঢাকা, শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২ | ৮ মাঘ ১৪২৮ | ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

রেহানা মরিয়ম নূর-এর সমালোচনায় তসলিমা

রেহানা মরিয়ম নূর-এর সমালোচনায় তসলিমা

ছবি: সংগৃহীত

দেশের সিনেমা হেলে মুক্তি পেয়েছে আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের বহুল আলোচিত মুভি 'রেহানা মরিয়ম নূর'। এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ডস (অ্যাপসা) দ্বিতীয় সেরা ছবি হয়েছে আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের এই ছবিটি। এতে সেরা অভিনেত্রীর স্বীকৃতি পান আজমেরী হক বাঁধন। এ ছাড়া হংকং এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভালে জিতেছে নিউ ট্যালেন্ট অ্যাওয়ার্ড। 

তবে ছবিটির ব্যাপক সুনামের পাশাপাশি সমালোচনাও আছে। সেই সমালোচকদের তালিকায় এবার যুক্ত হলেন তসলিমা নাসরিন।

তসলিমা নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন, ‘প্রথম কানে গিয়েছে বাংলাদেশের কোনো ছবি, খুব স্বাভাবিক যে সে ছবিটি দেখার আগ্রহ খুব হবে আমার। ছবিটি দেখার সৌভাগ্য হলো কাল রাতে। রেহানা মরিয়ম নূর। ছবিটির প্রধান চরিত্রে  আমার মনে হয়নি আছেন  কোনো সৎ বা উদার কোনো মানুষ। প্রথম থেকেই সে রগচটা, রুক্ষ, স্বার্থপর, একগুঁয়ে, আত্মকেন্দ্রিক। ধার্মিক রেহানাকে যদি নারীবাদী হিসেবে দেখানোর চেষ্টা হয়ে থাকে, তাহলে ভুল।’ 

তিনি বলেন, ‘নারীবাদীদের সংবেদনশীল হতে হয়। যত না সংবেদনশীল সে, তার চেয়ে বেশি প্রতিশোধপরায়ণ। তার জন্য কোনো শ্রদ্ধা বা সহানুভূতি জন্মায় না। ছবিটি ডেনিশ ডগমা ফিল্মের মতো হাত-ক্যামেরায় শুট করা। কিন্তু বারবারই জনমানবহীন হাসপাতালের একই করিডর, একই ঘোলা ঘর। কোনো আউটডোর নেই। কোনো আকাশ-বাতাস নেই। ছবিটি ছবি না হয়ে কোনো ডার্ক নাটক হলে ভালো হতো। সিনেমার বড় পর্দায় না দেখিয়ে মঞ্চে দেখালে মানাত।'

এএইচ