ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২ | ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ | ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

চিত্রনায়িকা শিমুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

চিত্রনায়িকা শিমুর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

ফাইল ছবি

চিত্রনায়িকা রাইমা ইসলাম শিমুর (৪৫) লাশ উদ্ধার করেছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। সোমবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকার কেরানীগঞ্জের হযরতপুরে আলীপুর ব্রিজসংলগ্ন কদমতলী এলাকায় রাস্তার পার্শ্ববর্তী একটি স্থান থেকে পুলিশ বস্তাবন্দি অবস্থায় এই  মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (মিটফোর্ড) পাঠায়। 

খবর পেয়ে মর্গে গিয়ে শিমুর লাশ শনাক্ত করেন তাঁর বড় ভাই খোকন, ছোট বোন ফাতেম আক্তার ফাতু এবং স্বামী সাখাওয়াত আলীম নোবেল। 

জানা গেছে, গত রবিবার সকালে ব্যক্তিগত কাজে বাসা থেকে বের হওয়ার কিছুক্ষণ পরই তাঁর মোবাইল নম্বর বন্ধ হয়ে যায়। পরিচিতদের সঙ্গে  যোগাযোগ করেও শিমুর কোনো সন্ধান না পেয়ে রাত ১১টার পর রাজধানীর কলাবাগান থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন তাঁর স্বামী সাখাওয়াত আলীম নোবেল। 

নিহত শিমুর বোন ফাতেমা ফাতু বলেন, আসলে আমরা কোনো কিছু এখনো সন্দেহ করতে পারছি না। মনের অবস্থাটাও ভালো না। তাঁর ১৬ বছরের এক মেয়ে এবং ৬ বছরের এক ছেলে আছে। ‘জামাই-শ্বশুর’ নামে একটি ছবিতে নায়িকা হিসেবে কাজ করার পর সন্তানদের জন্য আর চলচ্চিত্রে কাজ করেনি আপা। তবে গত কয়েক বছর ধরে ছোট পর্দায় নিয়মিত কাজ করছিল। ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস’ নামের ধারাবাহিকে তার অভিনয় খুবই প্রশংসিত হয়েছিল।  

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কেরানীগঞ্জ সার্কেল) শাহাবুদ্দিন কবির বলেন, লাশ উদ্ধারের পর ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে তাঁর পরিচয় নিশ্চিত হয়েছি। জাতীয় পরিচয়পত্রে থাকা ঠিকানায় খোঁজ নিয়ে তার স্বজনদের সঙ্গে কথা বলা হয়। ঘটনাটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং স্পর্শকাতর। আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছি। 

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবু সালাম মিয়া জানান, তাঁর শরীরে তেমন কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে নাক, কান দিয়ে রক্ত বের হতে দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, রাতে কেউ তাকে হত্যা করে বস্তাবন্দি করে রাস্তার পাশে ফেলে গেছে। 

এএইচ