ঢাকা, রবিবার, ৩ জুলাই ২০২২ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৯ | ৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

উপযুক্ত প্রশিক্ষণ নিলে তরুণরা বেকার থাকবে না: রাষ্ট্রপতি

উপযুক্ত প্রশিক্ষণ নিলে তরুণরা বেকার থাকবে না: রাষ্ট্রপতি

ফাইল ছবি

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, কর্মহীন শিক্ষা অনেক সময় মানুষকে ভুল পথে পরিচালিত করে। তৈরি করে অভিজাত শিক্ষিত বেকার শ্রেণী। বেকারত্বের বোঝা নিয়ে তরুণরা পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের সম্পদ না হয়ে দায় হিসেবে চিহ্নিত হয়। তবে আমি আশা করি, উপযুক্ত প্রশিক্ষণ নিলে তরুণরা বেকার থাকবে না।

বুধবার রাতে কিশোরগঞ্জে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি আরো বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে ডিজিটাল অর্থনীতি গড়ে উঠেছে। বিশ্বের প্রায় ৮০টিরও বেশি দেশে বাংলাদেশের তৈরি সফটওয়্যার ও আইটি সেবা রাপ্তানি করা হচ্ছে।  আইটি খাতে আয় এক দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলারে ছাড়িয়ে গেছে। ২০২৫ সালে এ আয় ৫ বিলিয়নে ছাড়িয়ে যাওয়ার আশা করা হচ্ছে। শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টারের মাধ্যমে দেশে বিপুলসংখ্যক দক্ষ আইটি প্রশিক্ষিত কর্মী গড়ে উঠবে। যারা দেশে বিদেশ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ আয় করবে। যার মাধ্যমে দেশের ডিজিটালাইজেশনও এগিয়ে যাবে।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে দেশে মাত্র আট লাখ লোক ইন্টারনেট ব্যবহার করত। এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করে ১২ কোটিরও বেশি মানুষ। ফলে শহর ও গ্রামের দূরত্ব কমে গেছে। বিশ্বের সবকিছু হাতের মুঠোয় চলে এসেছে। বর্তমানে বাংলাদেশে সক্রিয় ছয় লাখ ফ্রিল্যান্সার রয়েছে, যারা ঘরে বসে লাখ লাখ ডলার আয় করছে।
 
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, কিশোরগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য  ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি, বাংলাদেশ ডিজেল প্লান্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ মো. রফিকুল ইসলাম, স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ।

এর আগে বিকেলে রাষ্ট্রপতি উপজেলা সদরের ষোলমারা এলাকায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। 

প্রায় ১০০ কোটি টাকায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টারটি নির্মিত হচ্ছে।  

এএইচ