ঢাকা, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪ | ১ বৈশাখ ১৪৩১ | ৫ শাওয়াল ১৪৪৫

প্রতিবেশি দেশের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ বাণিজ্য পথ উন্মুক্ত রাখার আহবান

প্রতিবেশি দেশের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ বাণিজ্য পথ উন্মুক্ত রাখার আহবান

ফাইল ছবি

শাহরিয়ার হাসান: ভারত মহাসাগর বলয়ের প্রতিটি প্রতিবেশি দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক অব্যাহত রাখতে শান্তিপূর্ণ বাণিজ্য পথ উন্মুক্ত ও সচল রাখার আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশের সমুদ্র বিষয়ক নিরাপত্তা ও অধিকার আইন প্রণয়নের ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। 

শেখ হাসিনা বলেন, এদেশের বিশাল সমুদ্র সীমা ব্যবহার করে আর্থসামাজিক উন্নয়ন ঘটানো হবে পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগ কারীদের জন্য এ সমুদ্র বিশাল সম্ভাবনা ক্ষেত্র বলেও জানান তিনি। বিস্তারিত জানাচ্ছেন শাহরিয়ার বাঁধন। 

দেশের সমুদ্র অঞ্চলের সার্বভৌমত্ব প্রতিষ্ঠা, বহির্বিশ্বের সঙ্গে নিরবচ্ছিন্ন বাণিজ্যিক যোগাযোগ স্থাপন এবং সমূদ্রভিত্তিক অর্থনীতির অগ্রগতি বিবেচনায় ১৯৭৪ সালে টেরিটোরিয়াল ওয়াটার্স এন্ড মেরিটাইমস জোন এক্ট বা আঞ্চলিক পানি বন্টনে সমূদ্রসীমা আইন প্রণয়ন করেছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। 

বাংলাদেশের সমুদ্র বিষয়ক নিরাপত্তা ও অধিকার আইন প্রণয়নের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে নৌবাহিনী আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগদেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সকলের সাথে বন্ধুত্ব কারো সাথে বৈরীতা নয়,দেশের এ পররাষ্ট্রনীতি নীতিতে সমুদ্র সীমানাতেও কাজ করছে সরকার। এদেশের বিশাল সমুদ্র সীমা ব্যবহার করে আর্থসামাজিক উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব শুধু তাই নয় এ সীমা বিদেশি বিনিয়োগ কারীদের জন্যও বিশাল সম্ভাবনার ক্ষেত্র।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, প্রস্তুতি ও দিক নির্দেশনা ঠিক থাকলে সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ২০৪১ সালের লক্ষ বাস্তবায়ন করা সম্ভব।